সজল জাহিদ

সজল জাহিদ

সুখের বিনিময়ে বিলাসিতা? সে আমি চাইনা...

নজরুল ও রবীন্দ্রনাথের দ্বারে (পর্ব-চার)

দেখেই একটা অন্য রকম ভালোলাগা ছুঁয়ে গেল যেন। সরু পিচ ঢালা রাস্তা দিয়ে হেটে চলেছি ধীরে পায়ে। আর অবাক হয়ে চারপাশটা দেখছি।

নজরুল ও রবীন্দ্রনাথের দ্বারে ( পর্ব-তিন)

সৌভাগ্য নাকি দুর্ভাগ্য জানিনা, সেদিন ছিল বুধবার আর বুধবারেই নাকি পুরো ভারতবর্ষের শান্তিনিকেতনই কেবল বন্ধ থাকে! অন্যান্য সব রবিবার।

নজরুল ও রবীন্দ্রনাথের দ্বারে (পর্ব-দুই)

কিন্তু যেই তাকে উঠতে বলছে তাকেই সে একই কথা বলে ওদের রাগ আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে! কেন যে বুঝতে পারছেনা, চুপ করে বসে থাকাই সবচেয়ে ভালো।

দার্জিলিং ভ্রমণের সাশ্রয়ী উপায়

মাত্র ১৫০০০ টাকায় পুরো পরিবারের ৫ দিনের ডুয়ার্স-দার্জিলিং ভ্রমণের খতিয়ান

সোনমার্গ ও কাশ্মীর আতঙ্ক......!!

শুরু হল আতঙ্কের মধ্যে রোমাঞ্চকর যাত্রা। নীরব, অন্ধকার, শুনশান রাতের আঁকাবাঁকা, পাহাড়ি উঁচুনিচু রাস্তায় নতুন এক ধরনের রোমাঞ্চ।

টগবগিয়ে পাইনের অরণ্যে (কাশ্মীরের ছবি-গল্প)

পেহেলগামের একটি অন্যতম আকর্ষণ হল ঘোড়ায় চড়ে টগবগিয়ে পাহাড়ে পাহাড়ে দাড়িয়ে থাকা পাইনের গভীর অরণ্যের রোমাঞ্চকর যাত্রা। যা এতদিন শুধু নানা রকম সিনেমায় ও কিছু আরব্য গল্পের চিত্রায়নে দেখেছি।

ডাল লেকের সকাল-দুপুর-সন্ধ্যা

নানান রঙের সিকারার শান্ত জলে বয়ে চলা, লাল-নীল-সবুজ-হলুদ-বেগুনী আর গোলাপি, বর্ণিল ফুলে, ফুলে ভরা সিকারা গুলো ভেসে চলেছে এক হাউজ বোট থেকে আর এক হাউজ বোটের সিঁড়ির কাছে, দূরে পাহাড়ের সূর্যের সাথে লুকোচুরি খেলা সাথে নানা রঙের বদল ক্ষণে ক্ষণে, কখনো সবুজ, কখনো হলুদ আবার কখনো গোলাপির আভা

তিন আহাম্মকের গল্প...!!

এগুলোর জন্য স্বপ্ন দেখতে হয়, সেই স্বপ্নকে আঁকড়ে থাকতে হয়, সাধনা করতে হয়, উন্মাদ হতে হয়, মাঝে মাঝে হতে হয় বাঁধনছাড়া আর অনেকের অসহ্য আর অবাধ্য!

নজরুল ও রবীন্দ্রনাথের দ্বারে.(পর্ব-এক)

ভিন্নধর্মী আর নতুন কিছু লেখার জন্য এদের দুজনের চেয়ে ভালো আর প্রভাবক আর কেই বা হতে পারে?

নুব্রা থেকে প্যাংগং

এই লেকের যত ছবি দেখেছি সব ছবিই নীল আর নীলে বিসৃত ছিল সব সময়। ঝকঝকে নীল আকাশ, মাঝে মাঝে সাদা সাদা মিহি মেঘ, দূরে পাথুরে আর বরফে মোড়ানো পাহাড় আর নিচে নীল জলরাশির লেক।

ভ্রমণে নদীর আকর্ষণ!

একটা যায়গায় নদী বেশ টেনেছিল, এমনভাবেই টেনেছিল যে সেখানে একরাত থাকার জন্য নিজের মধ্যে একটা আগ্রহ টের পেয়েছি।

এতো বেড়াই কিভাবে? আমার কি অনেক টাকা!!

আমি এতো ঘন-ঘন আর এতো-এতো বৈচিত্রে ভরপুর যায়গায় যে যাই, আমার কি অনেক টাকা-পয়সা? নাকি আমি অনেক বড়লোক! এই প্রশ্ন অনেকের এবং অনেকদিন থেকেই।

যদি লক্ষ্য থাকে অটুট! (খারদুংলা টপ!-১৮৩৮০ ফুট!)

লক্ষ্য অটুট রেখে হৃদয়ে বিশ্বাসটা রেখেছিলাম তাই আজ দেখা হল, ছোঁয়া হল আর প্রাণভরে উপভোগ করা হল খারদুংলা টপ, পৃথিবীর উচ্চতম একটি রাস্তা।

গোলাপি গোধূলি, রুপালী রাত ও সোনালী সকালের গল্প!

বগালেকের সবুজ পানি তখন কালচে রঙ ধারণ করেছে, শেষ দুপুরের দমকা বাতাস হুহু করে পাহাড়ে পাহাড়ে, গাছে গাছে ছুটে ছুটে শীতের আগমনের সাথে সন্ধ্যাকে স্বাগতম জানাতে শুরু করেছে।

তেতুলিয়া-সমতলের চা বাগানের গল্প

চা বাগান বলতে আমরা শুধু সিলেট, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজারকেই বুঝে থাকি সাধারণত। অথচ আমাদের উত্তর বঙ্গে, পঞ্চগড়ের তেতুলিয়ার সমতলেই আছে দৃষ্টি নন্দন আর মনকাড়া এক সবুজের সমুদ্র!

আলোচিত পোস্ট


বিচিত্র যত গুল্ম (পর্ব-২)
কেরালা-এক ভিন্ন ভারতের গল্প