অনুভ্রমণ ডেস্ক

অনুভ্রমণ ডেস্ক

অনুভ্রমণ ডেস্ক

ফ্লোরেন্সের সকাল (১ম পর্ব)

শহরের প্রায় সব রাস্তার মোড়েই চোখে পড়া অতি প্রাচীন সব স্থাপত্য সেই সুপ্রাচীন গৌরবময় অতীতের কথাই স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে প্রতি ক্ষণে। বেশ খানিকক্ষণ অলি-গলি মাড়িয়ে বোঝা গেল আমরা শহরকেন্দ্রে এসে পৌঁছে গেছি

এভারেস্ট বেসক্যাম্পের পথে অভিযাত্রী দল (যাত্রা শুরু)

এভারেস্ট বেসক্যাম্পের পথে যাত্রাশুরু করলো অনুভ্রমনের অভিযাত্রী দল

রোমান হলিডে (শেষ)

প্যানথেওন বর্তমানে রোম মহানগরীর সবচেয়ে গভীর অংশে অবস্থান করছে, বলা হয় এর চারপাশে মাটির স্তর দেখলেই বোঝা যায় গত দুই হাজার বছরে কি পরিমাণ মাটি জমেছে এই অঞ্চলে

রোমান হলিডে (২)

সারি সারি দেবদূতের ভাস্কর্য শোভিত সেতুর অন্য প্রান্তে চোখে পড়ল আকাশ ছোঁয়ার চেষ্টারত এক অবেলিস্ক স্তম্ভ, তারপর বিশালাকার এক গম্বুজ ও সুরম্যপ্রাসাদ। বুঝলাম চেয়ে আছি বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম দেশ ভ্যাটিকান সিটির পানে

লিওনার্দোর ভিঞ্চি গ্রামে (শেষ)

পরিণত বয়সেও প্রায়ই বাজার থেকে বন্দী কবুতর কিনে ছেড়ে দিতেন উদার উম্মুক্ত আকাশে, অবলোকনে মেতে থাকতেন তাদের উড়াল, নোটবুকের পাতার পর পাতা ভরিয়ে তুলতেন পাখির উড়ন্ত অবস্থায় গতিবিদ্যা নিয়ে। প্রশ্ন হচ্ছে, লিওনার্দো আবিষ্কৃত যন্ত্রে কি উড়তে সক্ষম হয়ে ছিল কেউ? উত্তর এখনো জানা নেই, কিন্তু চলছে ব্যপক গবেষণা

রোমান হলিডে (১)

এই গলি, সেই গলি, এই রাস্তা, সেই রাস্তা পার হয়ে অবশেষে এক মোড় ঘুরতেই নজরে আসল চিরচেনা কলোসিয়ামের বিশাল অবয়ব, ইতিহাস যেন থমকে গেছে এইখানে।

হারিয়ে যাওয়া দেনিসোভান মানুষের সন্ধান

৪১,০০০ বছর আগের সেই কিশোরীর কথা যার হয়ত গাঢ় বর্ণের চোখ, চুল ও চামড়া ছিল , যাকে ধারণা করা হচ্ছে বিশ্বের বুকে সূর্য দেখা শেষ দেনিসোভান ।

লিওনার্দোর ভিঞ্চি গ্রামে - ২

সারি সারি উপত্যকা, প্রতি পাহাড়ের মাথায় জনবসতি, কিছু কিছু স্থাপনা এতই অপার্থিব নির্জনতায় মোড়া, কল্পলোকের প্রেক্ষাপট বলে ভ্রম হয়।

লিওনার্দোর ভিঞ্চি গ্রামে

পাহাড়ের মাথায় অবস্থিত সবুজ বনানী পরিবৃত আর পাখির কূজনে ভরা অনন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অধিকারিণী গ্রামটির চেয়ে ট্রিলিয়ন গুণ বেশী কৃতিত্বের অধিকারী মধ্যযুগে এখানে জন্ম নেওয়া এক ব্যক্তির, যার নাম লিওনার্দো, কিন্তু বিশ্ব তাকে চেনে ভিঞ্চি গ্রামের লিওনার্দো বা লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি নামে।

শাশুড়ি কেন ড্রাগন ? (শেষ পর্ব)

কিংবদন্তী বলে সেতুর উপরে দিয়ে কোন কুমারী হেঁটে গেলে যে কোন ড্রাগনের লেজ নড়ে উঠবে!

শাশুড়ি কেন ড্রাগন ? (২য় পর্ব)

লাল ইটের গির্জার সামনে উদয় হল সবজেটে বিশাল সরীসৃপ, কি বিকট তার মুখভঙ্গি, মনে হচ্ছে লেলিহান অগ্নিশিখা বাহির হবে এখনই

মধ্যরাতের আক্রোপোলিস, এথেন্সের স্কুইড ভাজা এবং রেবেকা

সুমসাম চারিদিক, অপার্থিব মনে হল পার্থননকে দূর থেকে, সেখানে কৃত্রিম আলো ফেলা হয়েছে সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য।

শাশুড়ি কেন ড্রাগন ?

নিদারুণ যুদ্ধ হল, যা কেউ কোনদিন দেখে নি শুনেও নি, জয়-পরাজয়ের পাল্লা একবার মানুষের দিকে হেলে তো পরমুহূর্তেই ড্রাগনের দিকে, কিন্তু শেষ মুহূর্তে আদমসন্তানের তরবারির এক কোপে বজ্জাত ড্রাগনের মুণ্ডুপাত ঘটল

জাগরেবের বোবান রেস্তোরাঁ

রুচিশীল পরিবেশ, উৎকট করে কিছু সাজানো নেই, যেমন নেই বোবান বা ক্রোয়েশিয়ান ফুটবল দলের নানা স্মারকও

মেরু ভালুকের দেশে - ৩

এ যেন আরেক সাহারা, দিক কাল পাত্র শূন্য, চারিদিকেই অথৈ নির্জনতা, হয়তবা এটাই পৃথিবীর সবচেয়ে দূষণমুক্ত অঞ্চল। আর কত বর্ণের যে বরফ!

আলোচিত পোস্ট


ঢাকার মগারা...!(তাজমহল ভ্রমণ)

ঢাকার মগারা...!(তাজমহল ভ্রমণ)

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৭

মরক্কোতে ভুরিভোজ

মরক্কোতে ভুরিভোজ

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৭

আজকের ছবি-২৩-১১-১৭

আজকের ছবি-২৩-১১-১৭

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৭