অনুভ্রমণ ডেস্ক

অনুভ্রমণ ডেস্ক

অনুভ্রমণ ডেস্ক

দিবর দীঘি এবং তার রহস্যে মোড়া স্তম্ভ

স্তম্ভটি সম্পূর্ণ গ্রানাইট পাথরে নির্মিত, এবং অবশ্যই নির্মাণের আগে আদি অবস্থায় এর ওজন বর্তমানের চেয়ে অনেক বেশী ছিল

মেঠো পথের লাজুক গুরগুরি ও আকাশের ঈগল

কী অপূর্ব একটা পাখি! দেখা মেলে না বলে তার পালকের চোখ ধাঁধানো সন্নিবেশন নজরে আসে না কখনো, আপন পরিবেশে একেবারে মাতিয়ে রাখল নানা অঙ্গিভঙ্গি করে! তবে খুবই লাজুক

তোপকাপি প্রাসাদ, সুলতানের হারেম ও পিরী রইসের ম্যাপ পর্ব ২

প্রচলিত গল্প মতে এক মৎস্যজীবী হীরেটি কুড়িয়ে পায় আবর্জনার মাঝে এবং এটাকে চকচকে কাঁচ মনে করেই পকেটে রেখে দেয়, পরে এক গহনার দোকানে দেখালে চতুর স্বর্ণকার মাত্র ৩টি চামচের বিনিময়ে হীরেটি হাসিল করে, যেখান থেকে এর নামে হয়েছে স্পুনমেকারস ডায়মন্ড।

তোপকাপি প্রাসাদ, সুলতানের হারেম ও পিরী রইসের ম্যাপ পর্ব ১

তোপকাপির সাথে সেই প্রথম পরিচয়, জানলাম মূলত অটোমান সুলতানদের প্রাসাদ ছিল সেটি, ৪০০ বছরেরও অধিক সময়। কোন এক ডিসেম্বরে আমরা দাঁড়ালাম সেই প্রাসাদ চত্বরে, সুরম্য অট্টালিকাটি এখনো আছে বসফরাসের আর মর্মর সাগরের পাড়ে,

নারীবিহীন সোনার চরে জলদাসদের অস্থায়ী আস্তানা (শেষ কিস্তি)

একাকী ছৈলা ফল ভেসে এসেছে সৈকতে, হয়ত একদিন এই ফলের বীজই বিশাল গাছে পরিণত হবে, সোনার চর আরেকটু স্থায়ী হবে বঙ্গোপসাগরের বুকে, আসবে জলদাসরা আবহমান কাল ধরে চলে আসা জীবনধারা মেনে।

নারীবিহীন সোনার চরে জলদাসদের অস্থায়ী আস্তানা (১ম কিস্তি)

বঙ্গোপসাগরের বুকে জেগে উঠেছে পাতলা ছিপছিপে এক চর, একেবারে নবীন নয় বালিমাটির এই ভূখণ্ড, লম্বা লম্বা সবুজ গাছ জানান দিচ্ছে কত চন্দ্রভুক অমাবস্যা এসে চলে গেছে মহাকালের বুকে তার আবির্ভাবের পরে

মথুরাপুরের রহস্যময় দেউল

এই দেউল একান্ত ভাবে বাংলার নিজস্ব- বাংলার পুরুষোচিত কৃষ্টির পরিচায়ক। বাংলার বাহির হইতে কোণ প্রভাবই ইহাকে স্পর্শ করে নাই।

চাপ নাম্বার ওয়ান

আরামের আবেশে চোখ মুদেই চাবিয়েই যাচ্ছি যেন অনন্ত কাল ধরে, মনে মনে আশা করছি তা যেন শেষ না হয়, ছুরি-কাঁটা-প্লেটের টুংটাং বোল চলছে সমান তালে,

ইউক্রেনের দুর্গ, গির্জা, ফসলের ক্ষেত

হাজার বছরের পুরনো এক প্রাচীন দুর্গের ধ্বংসাবশেষ, যা কিনা ইউক্রেনের এই অঞ্চলের একমাত্র দুর্গ যেটিকে মঙ্গলরা ১২৪০ সালে দখল করতে পারে নি। সত্যি বলতে দুর্গ বলতে টিকে ছিল মাত্র একটি ফটক ও কিছু দেয়াল।

দীর্ঘতম আঙ্গুলের (বৃহত্তম পায়ের পাতার) অধিকারী পাখি

আমাদের দেশে বেশ কিছু জায়গায় বিশেষ করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে একই পরিবারের অপূর্ব সুন্দর পাখি দলপিপি ( Bronze-winged Jacana) স্থায়ী ভাবে বসবাস করে, উৎসাহীরা পরের বার এর পায়ের পাতার দিকে খেয়াল করেন!

নিমপ্যাঁচা ও তাঁর ছানা

বাংলাদেশে যে ৩ ধরনের নিমপ্যাঁচা আছে, তাঁর মধ্যে যেটিকে নিয়েই জীবনানন্দ লিখেছিলেন সেই কণ্ঠী নিমপ্যাঁচা (Collared Scops Owl) দর্শন দিল তাঁর ছানাপোনা সহ।

দক্ষিণ গোলার্ধের বৃহত্তম হাঙর সমাবেশ!

সবচেয়ে বড় হাঙর যে হোয়েল সার্ক বা তিমি হাঙর সেটি আবার খায় অতি ক্ষুদে জীব, মানুষের সাথে তার বেশ শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান

চর পিয়ালের বুনো মহিষেরা

সামনের দিগন্তে জল ছুয়ে থাকা সবুজ এক টুকরো স্বর্গ চোখে পড়ল, নাম তার চর পিয়াল

বড় কান পেঁচা আর সুন্দরতম হাঁসের খোঁজে

অবশেষে দেখা মিলল প্রার্থিত হাঁসটির, কিন্তু তার এমন দর্শন কেন! খুবই আকর্ষক দেখতে সে, কোনই সন্দেহ নেই

বিশ্বের দুর্লভতম বেড়ালের মুখোমুখি

দেড়শ বছর আগেও আমুর নদী অববাহিকা, চীনের বিস্তীর্ণ অঞ্চল এবং দুই কোরিয়া জুড়ে দেখা মিলত আমুর চিতাবাঘের, আর আজকে মুক্ত অবস্থায় থাকা এই অপূর্ব প্রাণীটির সংখ্যা ৩০-টিরও কম! ভাবা যায়!

আলোচিত পোস্ট


বজ্রনিনাদী জলরাশির ইতিকথা

বজ্রনিনাদী জলরাশির ইতিকথা

শনিবার, জানুয়ারী ১৯, ২০১৯

লোহিত খাঁড়ি আর কৃষ্ণ নদীর গল্প (পর্ব-২)

লোহিত খাঁড়ি আর কৃষ্ণ নদীর গল্প (পর্ব-২)

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৭, ২০১৯

জিপলাইনে দুহাজার ফিট

জিপলাইনে দুহাজার ফিট

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ৩, ২০১৯