অনুভ্রমণ ডেস্ক

অনুভ্রমণ ডেস্ক

অনুভ্রমণ ডেস্ক

চিতোয়ানের গহীন বনে

বনের মাঝখানে এক চিলতে কাদাভরা জলাভূমি, তাতে কিছু জায়গা নিয়ে জন্মেছে পুরুষ্টু সবুজ ঘাস, জনাব গণ্ডার তাই খেয়ে চলেছে মনের সুখে, আমাদের দিকে ভ্রুক্ষেপই করল না।

আদিপুরুষের খোঁজে

নিকষ কালো আদিম গুহা, পরতে পরতে রহস্য, ইতিহাসের সুলুক সন্ধান, কোন পাথরের স্তরের নিচে কি আছে জানার কোন উপায় নেই, সাঁঝের আঁধারে ডানা মেলে গুহার আশ্রয় থেকে বাহির হয় বাদুড়ের ঝাক, প্রবেশের বিশালাকার মূল প্রবেশ পথটি দেখলে মনে হয় ডাইনোসরদের আস্তানা

ধ্বংসনগরী এরকোলানো - ১

অদ্ভুত এক শহর, পোড়ো, খাঁ খাঁ করছে, অধিকাংশ বাড়ীর ছাদ নেই, প্লাস্টার সুরকি খসে পড়া দাঁত বাহির করা স্তম্ভ দেখা যায় সারি সারি, মাঝে মাঝে ফাঁকা জায়গায় এক টুকরো সবুজ বাগান, আর দূরে, নতুন গড়ে ওঠা শহরের পিছনে আকাশের গায়ে হেলান দিয়ে খবরদারি করছে ভিসুভিয়াস।

বই রিভিউঃ একেবারে চূড়ায়, মাথার খুব কাছে আকাশ 

একই দড়িতে আরোহণ করে আমাদের আগে আরো তিনটি দল সামিট করেছে। তাই দড়িটি পুরোনো হয়ে গেছে। আইস পিটনগুলোও নড়বড়ে হয়ে গেছে। সেই দড়িতে আমরা সাতজন ঝুলে আছি। কী এক মৃত্যুময় আনন্দে মৃত্যুর ভয়কে উপেক্ষা করে উপরের দিকে জুমারিং করছি।

শুধু তারাদের দেখানো পথে যারা বিশ্বভ্রমণ করছেন

সূর্য নীল দিগন্তে দুব দিলো একটি প্রাচীন দেখতে নৌকা কোন মোটর ছাড়া এবং কোন নৌ চালানোর সরঞ্জাম ছাড়া প্রশান্ত মহাসাগরের অফুরন্ত ঢেউ এর মাঝে দিয়ে যাত্রা শুরু করলো।

চারশ বছরের পুরনো মাছমেলায়

বছরের মাত্র ১দিন বসলেও এই মেলাতে সারা দেশ তো বটেই অন্য দেশ থেকেও মানুষ আসে, নাম মাছমেলা বা জামাই মেলা, কারণ জামাইরা আসে সত্যিকারের বৃহৎ মৎস্যের খোঁজে!

যে ১১টি পাখির নামের সাথে বাংলাদেশ জড়িত - ১ম পর্ব

যে ১১টি পাখির নামের সাথে বাংলাদেশ জড়িত

লাস্ট ডেজ অফ পম্পেই শেষ পর্ব

২৩ আগস্ট ছিল রোমানদের অগ্নিদেবতা ভুলকানালিয়ার উৎসবের দিন, দেবতাকে নৈবদ্য দেবার একদিন পরেই আগুনের রোষেই ধ্বংস হয়ে গেছিল পম্পেই নগরী।

বই রিভিউঃ আমি কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখিনি

লেখকের দার্জিলিং ভ্রমণের মূল উদ্দেশ্য ছিল কাঞ্চনজঙ্ঘা দর্শন করা। ৮০০০ ফুট উচ্চতার টাইগার হিলে দাঁড়িয়ে তিনি কি পেরেছিলেন দেখতে কাঞ্চনজঙ্ঘাকে? নাকি সূর্যোদয় দেখেই তৃপ্ত হয়েছিলেন? টাইগার হিলের বিস্তারিত বর্ণনা পাওয়া যাবে “আমি কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখিনি” পর্বটিতে।

কোন পাখির শ্রবণশক্তি সবচেয়ে শক্তিশালী ?

তাদের সবচেয়ে বড় শারীরিক সক্ষমতা আসলে অতি নিখুঁত শ্রবণশক্তি! উদাহরণ স্বরূপ বলা যায় আমাদের চিরচেনা লক্ষী পেঁচার ( Tyto alba) কথা, তারা ঘুটঘুটে আঁধারেও দৃষ্টিশক্তির বিন্দুমাত্র সাহায্য না নিয়ে শতভাগ সাফল্য নিয়ে অতি দ্রুতগামী শিকার ধরতে সক্ষম।

লাস্ট ডেজ অফ পম্পেই পর্ব ২

চমৎকার রাস্তাগুলো বৃষ্টির জল নেমে যাবার জন্য সামান্য ঢালু করে তৈরি, সাথে ফুটপাতগুলোও। কিন্তু প্রায়ই রাস্তার মাঝখানে পড়ে থাকা বিশাল সব পাথর দেখে স্বাভাবিক ভাবেই মনে কৌতূহলের উদয় হল, এগুলো কিসের জন্য?

লাস্ট ডেজ অফ পম্পেই পর্ব ১

শহরটির এক দিকে অল্প দূরেই যেমন সমুদ্র, তেমনি অন্যদিকে আকাশের গায়ে হেলান দিয়ে ঘুমায় এক সবুজ পাহাড়। অরণ্য, পাহাড়, সমুদ্র মিলিয়ে অনেকটা পুরাণের স্বর্গ স্বর্গ আবহ এলাকার নিসর্গে।

মঙ্গলবাড়ির প্রাচীন মন্দির এবং গরুড় স্তম্ভ

মঙ্গলবাড়ি শিবমন্দির থেকে প্রায় ১৫০ মিটার দক্ষিণে অপেক্ষাকৃত নিচু স্থানে গরুড় স্তম্ভ নামের একটি উল্লেখযোগ্য প্রাচীন কীর্তি আছে। এটি সম্ভবত একটি মজে যাওয়া বিল, মানুষের তৈরি কোন জলাশয় নয়

দেশান্তরী প্রজাপতির ডানায় সারসের দেশে

হাইওয়ে ধরে যাবার পথে একবাসাতে তিনটি ধলা মাণিকজোড়ের ছানা দেখে কৌতূহল ভরে দাঁড়ানো হল, ভাগ্যিস দাঁড়িয়েছিলাম!

তোপকাপি প্রাসাদ, সুলতানের হারেম ও পিরী রইসের ম্যাপ পর্ব ৩

একের পর এক বিশাল বারান্দা , এক ফাঁকে যাওয়া হল সুলতানের দরবার কক্ষে, জাঁকজমকপূর্ণ তাকিয়া, মহামুল্য কাপড়ের পর্দা, আর স্মৃতির ধুপছায়া।

আলোচিত পোস্ট


বজ্রনিনাদী জলরাশির ইতিকথা

বজ্রনিনাদী জলরাশির ইতিকথা

শনিবার, জানুয়ারী ১৯, ২০১৯

লোহিত খাঁড়ি আর কৃষ্ণ নদীর গল্প (পর্ব-২)

লোহিত খাঁড়ি আর কৃষ্ণ নদীর গল্প (পর্ব-২)

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৭, ২০১৯

জিপলাইনে দুহাজার ফিট

জিপলাইনে দুহাজার ফিট

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ৩, ২০১৯