রাজস্থান এর নামের মধ্যেই লুকিয়ে আছে এই শহরের বিশেষত্ব। নামের প্রতি সুবিচার দেখিয়ে এখানে রাজার থাকার স্থান অর্থাৎ প্যালেসের অভাব নেই। এখানকার জয়পুর শহরকেই বলা হয় মহলের শহর।

তবে দিল্লী থেকে অন্য গন্তব্য থাকলে প্রায়ই দেখা যায় আমাদের দেশ থেকে ঘুরতে যায় তাদের রাজস্থান দেখার বড় একটা সময় থাকেনা। কিন্তু মাত্র একদিন সময় বের করতে পারলেও আপনি কিন্তু রাজস্থানের জয়পুরে চমৎকার একটা একদিনের প্যালেস ট্যুর দিতে পারেন, যেখানে একদিনেই দেখতে পারবেন বিখ্যাত চারটি প্যালেস।

প্যালেস গুলো হল- সিটি প্যালেস, হাওয়া মহল, আম্বার প্যালেস ও জল মহল।  

একদিনে চারটি প্যালেস এর রুট হল-

সিটি প্যালেস- হাওয়া মহল- আম্বার প্যালেস- জল মহল

নিচের ম্যাপটি দেখতে পারেন রুট টি বোঝার জন্য-

ম্যাপ ম্যাপ

 

 

১। সিটি প্যালেসঃ

সিটি প্যালেসসিটি প্যালেস

 

জয়পুরের সবথেকে সহজ গন্তব্য এই সিটি প্যালেস। এই প্যালেসের দারূন কারুকাজ আর রাজসিক সজ্জা যে কাওকে মুগ্ধ করবে। এখানে প্রবেশ করতে বিদেশীদের দিতে হয় ৫০০ রুপি।

 

সিটি প্যালেসে রেস্তরাঁ সিটি প্যালেসে রেস্তরাঁ

 

২। হাওয়া মহল

আইকনিক হাওয়া মহলআইকনিক হাওয়া মহল

 

বিখ্যাত গোলাপী রঙের এই মহল সিটি প্যালেস থেকে মাত্র ১০-১৫ মিনিটের হাটা দূরত্বে অবস্থিত। ২০০ রুপি দিয়ে প্রবেশ করতে হবে এখানে, খুব বেশি সময় লাগবে না ঘুরে দেখতে।

 

হাওয়া মহল হাওয়া মহল

 

৩। আম্বার প্যালেস

আম্বার প্যালেসআম্বার প্যালেস

 

হাওয়া মহল থেকে বের হয়ে চলে যান আম্বার প্যালেস এ। এই প্যালেস কে জয়পুরের শ্রেষ্ঠ প্যালেস ভাবা হয়। এখানে প্রবেশ করতে লাগবে ৫০০ রুপি। এই প্যালেসের গেটের পাশেই পাবেন ১১৩৫ খ্রিস্টাব্দের রেস্তোরাঁ। যেহেতু এটুকু আসতে আসতে বেলা গড়িয়েই যাবে তাই চাইলে সেখানে মধ্যাহ্নভোজ টাও সেরে নিতে পারেন।

 

আম্বার প্যালেসে রাজকীয় সরাইখানা আম্বার প্যালেসে রাজকীয় সরাইখানা

 

এর বাজুতেই আরো দুইটি প্যালেস আছে, চাইলে সেখানেও যেতে পারেন।

 

ক্যাফে থেকে ফোর্ট এর দৃশ্য ক্যাফে থেকে ফোর্ট এর দৃশ্য

 

৪। জল মহল

জল মহল জল মহল

 

এরকম চমৎকার একটা দিনের শেষ বিকেল টা কাটানোর জন্য লেকের পাড় থেকে ভালো জায়গা আর কি হতে পারে? যেহেতু আম্বার প্যালেস দেখা শেষ, এবার চলে আসুন জল মহলের লেকের ধারে।

জল মহল সুবিশাল লেকের মধ্যে অবস্থিত। এখানে দাঁড়িয়ে প্রাসাদ দেখতে দেখতে লেকের জলে সূর্যাস্ত টাও উপভোগ করুন।

এবার আপনার ফেরার পালা। লম্বা কিন্তু চমৎকার একটা দিনশেষে আপনার শরীর একটু ক্লান্ত থাকলেও মন থাকবে পূর্ন- এটা নিশ্চিত!  

(ছবি-pedalgoa.com)