আমরা যখন অস্ট্রেলিয়া সম্পর্কে চিন্তা করি তখন আমরা সাধারণত ক্যাঙ্গারু, সাপ, শার্ক এবং বিভিন্ন পোকামাকড়ের কথা কল্পনা করি। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া একটি বৈচিত্র্যময় দেশ।

আজ আমরা অস্ট্রেলিয়ার জীবন সম্পর্কে কিছু আকর্ষণীয় এবং মজার ঘটনা আপনাদের সাথে শেয়ার করছি । 

 বাগানের সামনে

ওয়ালাবি বা ক্যাঙ্গারুর সঙ্গ উপভোগ করা একজন অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকের জন্য অস্বাভাবিক বিষয় নয়। প্রত্যেকের জন্য সেখানে প্রচুর পরিমাণ জমি এবং সূর্যালোক আছে।

অন্যদিকে, প্রত্যেক অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক ক্যাঙ্গারু, ওয়ালাবি এবং কুয়ালার থাবা সম্পর্কে সচেতন, তাই তাঁরা তাদের কাছে থেকে এই জীবজন্তু থেকে কিছু দূরত্ব বজায় রাখেন।

 গ্রীষ্মকালে গাড়ী চালানো

অস্ট্রেলিয়ায় থেকে থাকলে আপনি নিশ্চয়ই এই বিষয় সম্পর্কে জানবেন, ওভেন গ্লাভস ছাড়া স্টিয়ারিং হুলই আপনি ধরতে পারবেন না। আমরা কি বলতে চাচ্ছি? এটি গরম!

 ভোট দেওয়া

অস্ট্রেলিয়ানরা খুবই ক্যাজুয়াল এবং এটি অত্যন্ত গরম। অস্ট্রেলিয়াতে ভোটদান করা বাধ্যতামূলক। কেউ যদি ভোট না দিয়ে থাকে তাহলে তার জরিমানা দেওয়া লাগে।

 প্রকৃতি

এটি দেখতে খুবই সুন্দর এবং শান্তিপূর্ণ হতে পারে, কিন্তু আপনার মনে রাখতে হবে যে, এখানে বিভিন্ন ধরণের অসংখ্য প্রাণী আছে যেগুলো আপনাকে মেরে ফেলতে পারে বা আপনার ক্ষতি করতে পারে। শার্ক, সাপ, কুমির এমনকি জেলিফিস-এই প্রাণীগুলো আপনাকে পেতে চাইবে। আপনার হয়তো এখন মনে হতে পারে, তাহলে তাঁরা কিভাবে ওখানে বেঁচে আছে?  

যাইহোক, অধিকাংশ এই প্রাণীগুলো খুবই বিরল, এরা ভিন্ন এলাকায় থাকে এবং সাধারণত তাদেরকে আপনি চিহ্নিত করার আগেই তারা আপনার কাছ থেকে দূরে সরে যাবে। কিন্তু প্রত্যেক অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকেরা সাপ, মাকড়সা এবং অন্য কোন ঝুঁকিপূর্ণ জিনিসের উপর নজর রাখতে জানে।

 মনোট্রিম

মনোট্রিম একটি স্তন্যপায়ী প্রাণী যারা বাচ্চা জন্ম দেওয়ার পরিবর্তে ডিম দেয় এবং অস্ট্রেলিয়া এই অবিশ্বাস্য প্রাণীর আবাসস্থল। এটি দেখে মনে হয় যেন একজন হাস্যরসাত্মক ব্যক্তিকে বিভিন্ন প্রাণী থেকে আলাদা আলাদা টুকরো নিয়ে তাদের সবাইকে একত্রিত করার চেষ্টা করেছে।   

এই কারণে অস্ট্রেলিয়া প্লাটিপ্লাস প্রাণীটি পেয়েছেঃ একটি হাঁসের পিঠ, একটি বিভারের লেজ এবং একটি ভোঁদড়ের পায়ের মতো।

আরেকটি প্রাণী হলো আখিডনাঃ আখিডনার সজারুর মতো কাঁটা, পাখির মতো ঠোঁট, ক্যাঙ্গারুর মতো থলি এবং সরীসৃপের মতো ডিম দেয়। আখিডনার শরীরে সজারুর কাঁটার মতো যে কাঁটা দেখা যায় তা আসলে চুল।

 শাবকবাহী জীব

মার্সুপিয়ালস বা শাবকবাহী জীবেরা অল্প বয়সের বাচ্চাদের তাদের একটি থলের মধ্যে বহন করে রাখে। নবজাতকেরা নিরাপদে থাকার জন্য তাদের মায়েদের পকেটে হামাগুড়ি দিয়ে যায় এবং কিছুদিন সেখানেই অবস্থান করে। সুপরিচিত শাবকবাহী জীবেরা হলো ক্যাঙ্গারো, ওয়ালাবি, কোয়ালা, পোসাম, অপোসাম এবং তাসমানিয়ার শয়তান।

 চিনি গ্লাইডার

অস্ট্রেলিয়া, নিউগিনি এবং ইন্দোনেশিয়ার কয়েকটি দ্বীপে এই বুদ্ধিমান ছোট প্রাণীরা বসবাস করে। তাদের চেহারা কাঠবিড়ালের মতো দেখতে এবং তারা গ্লাইড করতে পারে।

 ক্রিসমাস বা বড়দিন

যখন বিশ্বের অধিকাংশ দেশ শীতকালে বড়দিন উৎসব উদযাপন করে এবং এমনকি কিছু মানুষের একটি শুভ্র বড়দিন উপভোগ করার সুযোগ পায়, অস্ট্রেলিয়ায় তখন গ্রীষ্মের মাঝামাঝি সময়ে হয়। তাঁরা প্রায়ই সমুদ্র সৈকতে বা একটি পুলের কাছে এই উৎসব পালন করে থাকে।

চলবে.............

ব্রাইট সাইড থেকে অনুদিত।