বাংলার পথে

রাজারাম মন্দির, রাজৈর, মাদারীপুর

এই মন্দিরটির নির্মাণশৈলী বেশ চমৎকার। অনুমানিক ১৮২৫ খ্রিস্টাব্দে নির্মিত এই মন্দিরটি এই অঞ্চলের অন্যতম প্রাচীন মন্দির। তৎকালীন জমিদার ও কালীসাধক রাজা রাম নিজের পূজো আর্চনা করার জন্য মন্দিরটি নির্মাণ করে।

"হার্ডিঞ্জ ব্রীজ"

এই যান্ত্রিক দানব কে যতবার দেখি মন ভরে যায়। ব্রিটিশ সরকার দাম্ভিকতার সাথে বলেছিল ১০০ বছরেও এই সেতুর কিছু হবে না। সে হিসাবে ১৯১২ সালে নির্মিত এই সেতুর ওয়ারেন্টি গ্যারান্টি অনেক আগেই শেষ।

দেলদুয়ার জমিদার বাড়ি।।

দেলদুয়ার জমিদার বাড়ি নর্থ হাউজ নামে পরিচিত । বাংলার যে কটি মুসলিম জমিদার বাড়ি এখনও খুব ভালো ভাবে ঠায় হয়ে দাড়িয়ে আছে তার মধ্যে এটি অন্যতম।

" প্রাচীন শহর মোহাম্মদাবাদ"

প্রাচীন এই শহর মোহাম্মদাবাদের ইতিহাস অনেক পুরানো। ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার। প্রায় তিন বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে এখানে আছে প্রাচীন শহর মোহম্মদাবাদ।

সন্ন্যাসী রাজার গল্পটা জানেন তো?

যারা ঢাকা থেকে ডে ট্যুর করতে চাচ্ছেন তারা প্ল্যানে একই সাথে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক, নুহাশপল্লী, ন্যাশনাল পার্ক এসব রাখতে পারেন৷ সকাল সকাল এসে চমৎকার একটা ডে ট্যুর করে ঢাকায় ফিরে যেতে পারবেন৷

চাঁচড়া শিব মন্দির

যশোর-বেনোপোল হাইওয়েতে অবস্থিত এই মন্দিরটির নির্মাণশৈলী আমাকে বেশ মুগ্ধ করেছে। বাংলাদেশে সচরাচর আট চালা মন্দির দেখা যায় না।

তিন বিঘা করিডোর, পাটগ্রাম, লালমনিরহাট।

কাগজে কলমে ইহার মালিক বাংলাদেশ হইলেও রক্ষনাবেক্ষনের পুরা দ্বায়িত্ব ভারত সরকারের। চলতে চলতে এসে পড়লাম করিডোরের সামনে। করিডোরের চারপাশে লোহার বেষ্টনী দিয়ে ঘেরা।

"কামানখোলা জমিদার বাড়ী"

আগের দিনের মানুষরা আধুনিক যুগের মানুষ থেকেও যে সৌখিন ছিল তাদের তৈরি স্থাপনা দেখলে বুঝা যায়। প্রতিটি স্থাপনায় ফুটে উঠেছে রুচিশীলতার পরিচয়। অন্যদেশে যা সংরক্ষণ করা হয় আমাদের দেশে তাই মাটির সাথে মিশিয়ে ফেলা হত।

লালবাগ কেল্লা : প্রথম ভালবাসা

আমরা কি আমাদের ঐতিহ্য এভাবে শেষ হয়ে যেতে দিব নাকি রুখে দাড়াবো তা হয়তো সময় বলে দিব। এখনই সময় আমাদের মানসিকতার পরিবর্তনের। 

"তেওতা জমিদার বাড়ী"

তবে প্রেমের কবিতায় যে তার সমান ধার ছিল তা কবির বিভিন্ন কবিতা পড়লেই বুঝা যায়। এই জমিদার বাড়ীর কোন পুকুর ঘাটে বসে প্রমিলা দেবী কে দেখে কবি রচিত করেন "তুমি সুন্দর তাই চেয়ে থাকি প্রিয়"।

কাঠগোলা বাগান, মুর্শিদাবাদ

বর্তমানে কাঠগোলা বাগান একটি দর্শনীয় স্থান। অট্টালিকা, সংগ্রহশালা, গোপন সুরঙ্গপথ, আদিনাথ মন্দির, বাঁধানো পুকুর সব কিছু নিয়ে মুর্শিদাবাদের এই দর্শনীয় স্থানটি আপনার মুর্শিদাবাদ ভ্রমনের লিস্টে রাখুন ।

ইতিহাসের খোঁজে মেহেরপুর

ছোট ছিমছাম জেলা শহর মেহেরপুর। কিন্তু ইতিহাসের দিক দিয়ে এর গুরত্ব বাংলাদেশের অন্য জেলা থেকে একটু ভিন্ন। এই মেহেরপুরের আমঝুপিতেই মীর জাফর আর রর্বাট ক্লাইভের শেষ বৈঠক বসেছিল।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ম্যাগাজিনে ১৯৯৩ সালের বাংলাদেশের ছবি

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক গ্যালারি থেকে বর্ষার মৌসুমে ১৯৯৩ সালের বাংলাদেশের ছবি আপনাদের সাথে শেয়ার করছি।

গুলিয়াখালি সমুদ্র সৈকত

হালের ক্রেজ গুলিয়াখালি সি বিচ। এখানে গেলে অনেকটা সোয়াম্প ফরেস্ট আর ম্যানগ্রোভের মিক্সড ফিলিংস পাবেন।

সুরমা চা বাগান, সাতছড়ি, হবিগঞ্জ

যারা সমতলের চা বাগান দেখতে পঞ্চগড় যেতে আগ্রহী নন, তারা ঢাকার খুব কাছেই অবস্থিত সাতছড়ির সমতলের চা বাগান দেখে আসতে পারেন।

আলোচিত পোস্ট


বিচিত্র যত গুল্ম (পর্ব-২)
কেরালা-এক ভিন্ন ভারতের গল্প