বাংলার পথে

ঈদের ছুটিতে ঢাকার অদূরে বেড়াতে যাবেন? (২য় কিস্তি)

যারা ঢাকায় থাকবেন তারা পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন

ঈদের ছুটিতে ঢাকার অদূরে বেড়াতে যাবেন?

পানাম সিটি ঢাকা শহর থেকে একদমই আলাদা এবং অন্য রকম। পুরনো বাড়িগুলো দেখে দেখেই দিন পার হয়ে যাবে।

প্রিয় শহর (পর্ব ২)

তিন নেতার মাজারের পিছনেই রয়েছে খাজা শাহবাজের মসজিদ। হাটতে হাটতে সেখানে গেলাম। মসজিদটি দেখতে খুব সুন্দর এবং এটি এখনো পর্যন্ত ভালো অবস্থায় আছে।

ঈদের ভ্রমণে ঘুরে আসুন খাগড়াছড়ি

সব কাজের পর মন চায় একটু বেড়িয়ে আসতে, পরিবার নিয়ে অথবা বন্ধুরা মিলে দূরে কোথাও সবুজ সুনিবিড় শান্তির মাঝে। ঘুরে আসতে পারেন সবুজ পাহাড়ের দেশ খাগড়াছড়ি।

প্রিয় শহর (পর্ব ১)

ঢাকার সেরা স্থাপত্য নিদর্শনের প্রথম সারির একটি হচ্ছে কার্জন হল। এটি নাকি মোঘল সম্রাট আকবরের রাজধানী ফতেপুর সিক্রির দেওয়ান-ই-খাস এর কিছুটা অনুকরণে তৈরী করা হয়।

ঈদের ছুটিতে রাজসিক রাজশাহী

যেখানে পাহাড় নেই, সমুদ্র নেই, চা-বাগান নেই, লেক নেই, অরণ্য নেই, তবে সুখ আছে, শান্তি আছে, আতিথেয়তা আছে, ঐতিহ্য আছে, ফুল-ফলের সমারোহ আছে, আর আছে নিখাদ সরলতা মাখা শত মানুষের সত্যিকারের সমাদর।

হার্ডিঞ্জ ব্রীজ এক যান্ত্রিক দানব

হার্ডিঞ্জ ব্রীজ এক যান্ত্রিক দানবের নাম। বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় রেলওয়ে ব্রীজ হচ্ছে হাডিঞ্জ ব্রীজ

ঈদের ছুটিতে ১০০০ টাকায় বিছানাকান্দি

মাত্র একদিনে নামমাত্র খরচেই আপনি চলে যেতে পারেন আপনার পছন্দের জায়গায়। ভাবছেন এমন জায়গা আবার কোথায়?

রাজশাহী-পুঠিয়া রাজবাড়ী

পুঠিয়া রাজবাড়ী বা পাঁচআনি জমিদারবাড়ী হচ্ছে মহারানী হেমন্তকুমারী দেবীর বাসভবন। বাংলার প্রত্নতাত্ত্বিক ঐতিহ্যের মধ্যে রাজশাহীর পুঠিয়া রাজবাড়ী অন্যতম।

মাতা মুহুরি নদীর ব্যারেজ।

চল্লিশের অধিক স্লুইস গেইট সমৃদ্ধ ব্যারেজ আর ওপারের চরে গড়ে ওঠা বায়ু বিদ্যুত প্রকল্প নিয়ে এক মনোরম পরিবেশ

প্রিয় ভ্রমণসঙ্গী ও পুরানো ঢাকা (তিন-তৃতীয়াংশ)

গোধূলীর হলুদাভ আলো কৃষ্ণবর্না বুড়িগঙ্গাকেও সুন্দরী করে তুলেছে। নৌকাতে করে যাত্রী পারাপার হচ্ছে। অন্যদিকে সদরঘাট। বড়বড় লঞ্চ বাধা রয়েছে সেখানে। 

সংগ্রামপুঞ্জির ঝরনায়

বর্ষাকাল আর বিশ্বের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের অঞ্চল—দুইয়ে মিলে প্রবল তেজে ফুঁসছে দুধের মতো সাদা স্রোতের ঝরনাগুলো। অনেক দূর থেকেও শোনা যাচ্ছিল পানির আছড়ে পড়ার শব্দ।

উদ্দেশ্য নরসিংদী।

মাধবদী বাজার থেকে যেতে হবে বালাপুর গ্রাম যেখানে দেখা পাওয়া যাবে কারুকার্য খচিত বিধান সাহার জমিদার বাড়ি। যাওয়ার পথে রাস্তার দুপাশের গ্রাম্য সৌন্দর্য আপনাকে মুগ্ধ করে তুলবে।

মানিকগন্জ:-বালিয়াটি জমিদার বাড়ী

পশ্চিম দিকে তাল পুকুরের ধারে আয়োজন করা হতো রথ উৎসব। এখানে বসত রথের মেলা। পর্যাপ্ত জায়গার অভাবে বর্তমানে এই স্থানে রথের মেলা হয় না।

পীর শাহ নিয়ামত উল্লাহ ওয়ালীর মাজার

বার আউলিয়ার দেশ বাংলাদেশ। এই দেশে ইসলাম প্রচারের জন্য এসেছে অনেক সুফী সাধক। তার মধ্যে অন্যতম পীর শাহ নিয়ামত উল্লাহ ওয়ালী।

আলোচিত পোস্ট


ভ্রমণে যখন নারী একা

ভ্রমণে যখন নারী একা

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭

আজকের ছবি-২৪-০৯-১৭

আজকের ছবি-২৪-০৯-১৭

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭

পাহাড়ে আলিশান ক্যাম্পিং

পাহাড়ে আলিশান ক্যাম্পিং

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

আজকের ছবি-২৩-০৯-১৭

আজকের ছবি-২৩-০৯-১৭

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

আকাশ জোনাকির নীড়ে

আকাশ জোনাকির নীড়ে

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৭