ইংরেজ আমলে পূর্ববঙ্গের সর্ববৃহৎ রাজ্যের যে রাজা রানীর পরকীয়ার বলী হয়ে প্রান হারান৷ অতঃপর একদশক পর মৃত রাজা সন্ন্যাসীর বেশে ফিরে এসে একযুগেরও বেশি সময় ধরে আইনী লড়াই করে অবশেষে নিজের জমিদারী ফিরে পান৷ 

নাহ আমি বিখ্যাত অভিনেতা উত্তম কুমারের চলচিত্র "সন্ন্যাসী রাজা"র গল্প বলছি না, বলছি ঐ চলচিত্র যে ঘটনার ছায়া অবলম্বনে নির্মিত হয়েছিল জয়দেবপুরের ভাওয়াল রাজার রোমাঞ্চকর সেই বাস্তব কাহিনীর কথা৷ 

এখনো জয়দেবপুরের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে আছে সেই রাজত্বের নানান নিদর্শন, তৎকালিন ভাওয়াল রাজাদের যে রাজবাড়িটা এখন জেলা প্রশাসককের কার্যালয় হিসেবে ব্যাবহার করা হচ্ছে বিস্তৃতির দিক থেকে ঢাকার নবাব স্টেটের পর এটাই সবচেয়ে বড় রাজবাড়ী আর ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন সেই রাজাদের শ্মশানের একাংশ৷ 

সময় করে একদিন চলে আসতে পারেন ঢাকার অদূরে গাজীপুরের এই ইতিহাস ঐতিহ্যমন্ডিত জনপদে, ইতিহাসের পথ ধরে হেটে যেতে যেতে কিছু সময়ের জন্য ভাওয়াল রাজাদের হারানো জৌলুসে হারিয়েও যেতে পারেন৷ 

যেভাবে আসবেনঃ

ঢাকা থেকে সড়কপথে গাজীপুর চৌরাস্তায় এসে সরাসরি রাজবাড়ী যাওয়ার সিএনজি পেয়ে যাবেন(ভাড়া ১৫-২০টাকা)৷ ট্রেনে আসতে চাইলে জয়দেবপুর স্টেশনে নেমে রিকশা নিলেই হবে (ভাড়া ১০টাকা)৷ রাজবাড়ী থেকে শ্মশানঘাট রিকশায় ১৫-২০ টাকা নিবে৷

যারা ঢাকা থেকে ডে ট্যুর করতে চাচ্ছেন তারা প্ল্যানে একই সাথে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক, নুহাশপল্লী, ন্যাশনাল পার্ক এসব রাখতে পারেন৷ সকাল সকাল এসে চমৎকার একটা ডে ট্যুর করে ঢাকায় ফিরে যেতে পারবেন৷