প্রকৃতি

সুনামগঞ্জে প্রশ্নবিদ্ধ শালিক

ধলাতলা-শালিক মেঘালয় ও আসামে দেখা যায়। সুনামগঞ্জ শহরে এর আবির্ভাব অবিশ্বাস্য কিছু নয়

মেঠো পথের লাজুক গুরগুরি ও আকাশের ঈগল

কী অপূর্ব একটা পাখি! দেখা মেলে না বলে তার পালকের চোখ ধাঁধানো সন্নিবেশন নজরে আসে না কখনো, আপন পরিবেশে একেবারে মাতিয়ে রাখল নানা অঙ্গিভঙ্গি করে! তবে খুবই লাজুক

ছদ্মবেশি রাতচরার খোঁজে

গ্রামের লোক একে বলে আতস পাখি। রাতে ওদের চোখ দিয়ে নাকি আগুন বেরোয়। এই ধারণা থেকে জন্মেছে ভয় ধরানো কত গল্প, কত কাল্পনিক কাহিনি!

কুয়াকাটার যতো পাখি

নতুন পাখি আবিস্কারের খবর শুনে অনেক পাখি পর্যবেক্ষকের মতো আমিও ঘরে বসে থাকতে পারিনি। সব জেলায়তো আর যাওয়া সম্ভব নয় ! আর অর্থেরও প্রয়োজন, তাই সাগরকন্যা কুয়াকাটাকেই বেছেনিলাম।

পাহাড় পাখি পাবলাখালি

ভয়ঙ্কর সুন্দর, অজগরের মতো লম্বা আর উঁচু-নিচু পাহাড়ি রাস্তা পেরিয়ে পৌঁছলাম সাজেক পাহাড়ে। দুঃসাহসিক অভিযানের স্বাদ পেতে আমারা কজন চান্দের গাড়ির ছাদে উঠে বসলাম।

নদী ও জীবনের সন্ধানে

কাপ্তাইয়ের পরবর্তী ভোরটি যে আমাদের জন্য এত বড় সারপ্রাইজ নিয়ে বসেছিল তা কখনও ভাবিনি! একদল লাল-বনমুরগি আর বিরল কালা-মথুরা আপন মনে ভুরিভোজন করছে! খুব কাছ থেকে অসাধারণ এই মুহূর্তটি

চমকপ্রদ হাকালুকি রিংগিং

প্রথমদিন হতাশ হলেও পরের দিন ঠিকই টনের সাফল্যে ধরা দিল বাংলা-রাঙ্গাচ্যাগা। পাখার বাহারী নকশা অত কাছ থেকে দেখে মুগ্ধ হলো সবাই, যেন কোনো দক্ষ শিল্পীর তুলিতে আঁকা

দীর্ঘতম আঙ্গুলের (বৃহত্তম পায়ের পাতার) অধিকারী পাখি

আমাদের দেশে বেশ কিছু জায়গায় বিশেষ করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে একই পরিবারের অপূর্ব সুন্দর পাখি দলপিপি ( Bronze-winged Jacana) স্থায়ী ভাবে বসবাস করে, উৎসাহীরা পরের বার এর পায়ের পাতার দিকে খেয়াল করেন!

নিমপ্যাঁচা ও তাঁর ছানা

বাংলাদেশে যে ৩ ধরনের নিমপ্যাঁচা আছে, তাঁর মধ্যে যেটিকে নিয়েই জীবনানন্দ লিখেছিলেন সেই কণ্ঠী নিমপ্যাঁচা (Collared Scops Owl) দর্শন দিল তাঁর ছানাপোনা সহ।

বড় কান পেঁচা আর সুন্দরতম হাঁসের খোঁজে

অবশেষে দেখা মিলল প্রার্থিত হাঁসটির, কিন্তু তার এমন দর্শন কেন! খুবই আকর্ষক দেখতে সে, কোনই সন্দেহ নেই

বিশ্বের দুর্লভতম বেড়ালের মুখোমুখি

দেড়শ বছর আগেও আমুর নদী অববাহিকা, চীনের বিস্তীর্ণ অঞ্চল এবং দুই কোরিয়া জুড়ে দেখা মিলত আমুর চিতাবাঘের, আর আজকে মুক্ত অবস্থায় থাকা এই অপূর্ব প্রাণীটির সংখ্যা ৩০-টিরও কম! ভাবা যায়!

দেখা হয় না চক্ষু মেলিয়া- শহরে বুনো পাখির স্নানাগার

দুই ডানা উচিয়ে লেজ নামিয়ে ঝুপঝুপ ডুব দিয়ে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি করে চলল সে একইভাবে, তার সাথে যোগ দিল এক মেয়ে উদয়ী দোয়েল, আমাদের জাতীয় পাখি!

ভোঁদড়ের খোঁজে একটি বিকেল ও সাঁঝের মেছোবাঘ

এত কাছ থেকে বুনো ভোঁদড় বা উদবিড়াল দেখার সৌভাগ্য আমাদের দলের কারোরই হয় নি

সোঁদরবনের রহস্যময়ী

সুন্দরবনের গহীনে বাস করে বাঘের চেয়েও রহস্যময় এক প্রাণী, তারই খোঁজে আমাদের যাত্রা শুরু

পর্যবেক্ষণ থেকে সংরক্ষণঃ কুষ্টিয়া বার্ড ক্লাব

শহুরে ব্যস্ততম জীবনযাত্রার ফাঁকে প্রকৃতি ও পাখি দেখে শখের থলিতে বাড়তি আনন্দ যোগ করতে এসে সেদিন আমাদের অনেকটাই হতাশ ও ব্যর্থ হতে হয়েছিল।

আলোচিত পোস্ট


অ্যান আমেরিকান ড্রিম - ৬
অ্যান আমেরিকান ড্রিম - ৫
অ্যান আমেরিকান ড্রিম- ৪

অ্যান আমেরিকান ড্রিম- ৪

শনিবার, আগস্ট ১১, ২০১৮

অ্যান আমেরিকান ড্রিম - ৩
অ্যান আমেরিকান ড্রিম - ১

অ্যান আমেরিকান ড্রিম - ১

মঙ্গলবার, জুলাই ৩১, ২০১৮