আজ বিশ্ব অক্টোপাস দিবস। অক্টোপাস নিয়ে মানুষের নানা আতঙ্ক ও ভুল ধারণা আছে বিভিন্ন সিনেমা এবং সায়েন্স ফিকশনের কারণে যেখানে এদের অত্যন্ত নিষ্ঠুর ভিলেন ধরণের প্রাণী হিসেবে দেখানো হয়।

চলুন জানি এদের সম্পর্কে সেইসাথে দেখুন সৈয়দ আব্বাছের তোলা নানা জাতের অক্টোপাসের অসাধারণ কিছু ছবি

অক্টোপাস আটটি বাহু বিশিষ্ট সামুদ্রিক প্রাণী। দেখতে শামুকের মত না হলেও (শক্ত খোলস নেই) এরা শামুক-ঝিনুকের জাতভাই অর্থাৎ মোলাস্কা পর্বের অন্তর্ভুক্ত।  এরা নিশাচর, সাধারণতঃ ধীর গতিসম্পন্ন। এখন পর্যন্ত ৩০০ জাতের অক্টোপাসের সন্ধান পাওয়া গেছে-

 শামুক-ঝিনুকের জাতভাই শামুক-ঝিনুকের জাতভাই

সাধারণত অক্টোপাসগুলো খুব একটা বড় হয়না। দৈর্ঘ্য হয় সর্বোচ্চ ৪.৫ ফিট এবং ওজন হয় প্রায় ১০ কেজি। তবে এশিয়া প্যাসেফিক অঞ্চলে এক প্রজাতির অক্টোপাস রয়েছে যা জায়ান্ট অক্টোপাস নামে পরিচিত। এটি অন্য যে কোন অক্টোপাস থেকে বড়। এর নাম ডলফিনি অক্টোপাস। এটি লম্বায় প্রায় ৩০ ফিট এবং ওজন প্রায় ২৭৫ কেজি পর্যন্ত হয়।

ছোটবড় বিভিন্ন আকারের অক্টোপাস রয়েছে।ছোটবড় বিভিন্ন আকারের অক্টোপাস রয়েছে।

অক্টোপাস মাংসাশী প্রাণী।মাছ, কাকড়া, চিংড়ি ইত্যাদি অক্টোপাসের প্রিয় খাদ্য।

অক্টোপাস মাংসাশী প্রাণী।অক্টোপাস মাংসাশী প্রাণী।

অক্টোপাসের আত্নরক্ষার কৌশল বেশ অদ্ভুত। এরা ইচ্ছেমত নিজের দেহের রঙ পরিবর্তন এবং মাথার নিচের নলাকার ফানেল জলপূর্ণ করে দ্রুতবেগে বের করে দিয়ে তাড়াতাড়ি দূরে সরে যেতে পারে। রং পরিবর্তনের ফলে সমুদ্রতলের বালি, পাথর, উদ্ভিদ ইত্যাদির সাথে এমনভাবে মিশে যেতে পারে যে হাঙ্গর, ইল, ফিন (অক্টোপাসের প্রধান শত্রু) খুব কাছ থেকেও একে শনাক্ত করতে পারে না।

অক্টোপাস অক্টোপাস

এছাড়াও এদের দেহে কালি থলে(ink sac) থাকে যার সাহাহ্যে অক্টোপাস নিজের দেহ থেকে ঘন কালো কালি ছুঁড়ে দিতে পারে যা শত্রুকে কিছুক্ষণের জন্য অন্ধ করে দেয়। এ কালির আরেকটি গুণ হচ্ছে এটি শত্রুর ঘ্রাণশক্তিও কিছুক্ষণের জন্য নষ্ট করে দেয়। ফলে অক্টোপাসটি পালিয়ে যেতে পারে। শেষ পর্যন্ত আত্নরক্ষার কোন উপায় না পেলে অনেক সময় এরা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে অথবা নিজের বাহু খেতে আরম্ভ করে! অক্টোপাস খুব দ্রুত গতিতে ছুটতে পারে যা এটির আত্নরক্ষায় সহায়ক।

নিজের দেহের রঙ পরিবর্তন পারেনিজের দেহের রঙ পরিবর্তন পারে

অক্টোপাসের একটি লক্ষণীয় বৈশিষ্ট্য হল রঙ বা বর্ণ পরিবর্তনের ক্ষমতা। এর ত্বকে আঁচিলের মত ফুস্কুড়ি থাকে। ত্বকের নিচে অনেকগুলি ক্রোমাটোফোর(chtomatophore) আছে। ক্রোমাটোফোরে নানা রঙের কোষ থাকে। এসব কোষের সাহায্যেও এরা দেহের রঙ পাল্টায়।

এরা দেহের রঙ পাল্টায়এরা দেহের রঙ পাল্টায়

তথ্যঃ উইকি