বাংলাদেশে বিশ্বের সবথেকে বড় সমুদ্রসৈকত আছে বটে, কিন্তু এদেশ থেকে সমুদ্রভ্রমণের বড় একটা সুযোগ নেই- ইয়টে চড়ে ঘুরে বেড়ানো তো অনেক দূরের কথা।

কিন্তু প্রযুক্তির এই যুগে ইন্টারনেট আর মিডিয়ার কল্যাণে ধনকুবের দের ব্যক্তিগত ইয়টের বিলাসবহুল যাত্রার কথা আমরা কমবেশি সকলেই জানি। আপনি এটাকে অবশ্যই সাধারণ নৌকা ভ্রমণের সাথে তুলনা করতে পারবেন না। আর ভ্রমনপাগল কার না ইচ্ছে করে ভ্রমনের ছোট-বড় সব অভিজ্ঞতা নিতে!

কিন্তু ইচ্ছে থাকলেই সকলের ইয়টের ভিতরে ঢোকার সুযোগ হয়না। বাস্তবে না হোক- অন্তত একটা ভার্চুয়াল ইয়ট ভ্রমণ করে নিতে পারেন অনুভ্রমণের সাথে! দেখে নিন বিলাসবহুল এই ব্যক্তিমালিকানাধীন 130 sport ইয়টের ভিতরটা ঠিক কেমন!

 বিশাল জায়গা জুড়ে দারুন ভাবে সজ্জিত জাহাজের মেইন স্যালুন। গল্প-আড্ডা-বিনোদন বা জরুরি মিটিং- সবই হয় এখানে।

 

লাক্সারি লাউঞ্জ- ইয়টে থাকে বিশ্রাম নেয়ার জন্য প্রচুর আরামদায়ক জায়গা। আর অবশ্যই থাকে বার।

 

যাত্রাকালীন এই ডাইনিং টেবিলে একসাথে অনায়াসে ১০ জন অতিথি খেতে পারবেন।

 

 

 

বেডরুম এর দারুণ সুন্দর লাইটিং আলো আধারি পরিবেশ তৈরি করে।

 

বড় বেসিন, আধুনিক ফিটিংস সহ ইয়টের বাথরুম গুলো কোন অংশেই পাচতারকা হোটেলের থেকে কম নয়!

 

জিম ও রয়েছে, যেন ইয়টের মালিক সমুদ্রভ্রমণ করতে করতে মুটিয়ে না যান।  

এরকম ইয়ট থাকতে এর মালিকেরা কেন ডাঙ্গায় পা রাখে কে জানে!

(সূত্রঃ home-designing.com)