খানা পিনা

নান্দনিক মাটির ঘর

মাটির দেয়ালে বানানো মাটির ঘর এর খাবারের টেবিল বানানো হয়েছে লম্বালম্বি মোটা গাছ চিড়ে, যার চেয়ার গুলো আস্ত ‘লগ’ বা গাছের গুড়ির। গ্রামীণ ঐতিহ্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে হাতপাখা রয়েছে প্রত্যেকটি টেবিলে। খাবার এর বাসন হিসেবেও সব মাটির তৈরি তৈজসপত্রই ব্যবহৃত হয় এখানে।

ভূতের বাড়ির ভুনা খিচুড়ি

আইনস্টাইনের সুত্র অনুযায়ী পকেট খালি থাকলে ক্ষুধা লাগে বেশী...

অন্যরকম কেক- ফিশকেক

তাদের ফিশ কেক নাকি অসাম! জীবনে তো অনেক চকলেট ভ্যানিলা কেক খাইলাম মাগার ফিশ কেক....!!! যখন সামনে দিয়া গেলো, গন্ধ টাতেই রুচি বেড়ে গেলো বহুগুন।।

অবিশ্বাস্য দামে দেশের ৫ বিরিয়ানি খোঁজ!

সুস্বাদু এই খাবারের দামটা একটু বেশি বলেই সর্বস্তরের জনগনের পক্ষে সবসময় খাওয়া সম্ভব হয়ে ওঠেনা এটি। অথচ একটু খোঁজখবর রাখলেই পাওয়া যাবে একদম অল্পদামে মহার্ঘ্য এই খাবারের খোঁজ!

মরক্কোতে ভুরিভোজ

মরক্কো এসে ভুরিভোজ ভালোই হচ্ছে , যেহেতু মারাক্কেশ ভূমধ্যসাগরের তীরবর্তী শহর তাই এখানে সামুদ্রিক মাছের আধিক্য সহজেই নজর কাড়ে।

ভিয়েতনামের মজার খাবার- ফা

খাবার টি যেমন সুস্বাদু , তেমনি স্বাস্থ্যকর । মাঝে মাঝেই আমি ভিয়েতনামিজ রেস্তোরাঁ তে ঢুকে পড়ি pho খাবার আশায় ।

কোরিয়ান তরকারি- ওজিঙেও বককেয়াম

ওজিঙেও বককেয়াম খেতে প্রচন্ড ঝাল, কিন্তু অমৃতের মতন । মরিচের ভর্তা দিয়ে এটা বানানো হয়, সাথে সেলেরি, বাঁধাকপি, আর পেঁয়াজ । এটা মুলতো অনেক তাপে বানাতে হয় , যাতে স্কুইড টা শক্ত না হয়ে যায় ।

খাইদাই-থাইল্যান্ড (পর্ব ২)

ব্যাংকক এমন একটা জায়গা, যেটা স্ট্রিটফুডপ্রেমীদের জন্য স্বর্গ বলা যেতে পারে। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে ফিরতেই ওদের রাস্তাঘাটে নানা রকমের খাবার দেখতে পাওয়া যায়। হরেক রকম মাংসের নানা পদ, চাওমিন অথবা স্টিকি রাইস – এগুলো প্রায় সব জায়গাতেই দেখতে পাওয়া যায়।

নেদারল্যান্ডসে ইন্দোনেশিয়ান খাবার

আমস্টারডাম এ হাটতে হাটতে এতো ইন্দোনেশিয়ান রেস্তোরাঁ দেখে ঠিক করে ফেললাম যে প্রতিদিন ই ইন্দোনেশিয়ান খাবার খাবো । ইন্দোনেশিয়ান রেস্তোরাঁর মধ্যে আমস্টারডাম এর Bunga Mawar আর দেন হ্যাগ এর Poentjak ইন্দোনেশিয়ান খাবারে অতুলনীয় ।

জয় চা!

চা আজ পরিণীত বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় পানীয়তে- যার পরিবেশনা, উপস্থাপনা এমনকি উপাদান পরিবর্তিত হয়েছে অঞ্চলভেদে কিন্তু আবেদন থেকেছে অটুট হয়ে।

মাছ আর পাই এর দেশ পর্ব ৩ (খাওয়া দাওয়া)

এই নামে যদি নিউজিল্যান্ড কে পরিচয় না করিয়ে দিই তবে খাদ্য রসিকদের কাছে আজীবন অপরাধী হয়ে থাকতে হবে

পর্তুগালের লিসবনে পেটপুজো

একটু স্পাইসি জাতীয় রান্না , মজা লেগেছে , পরিবেশনের ধরণ, স্বাদ সব মিলে যেন একাকার

খাইদাই-থাইল্যান্ড (পর্ব ১)

খুবই আঠালো, খানিকটা লবণাক্ত ভাতের সাথে সুগন্ধী মিষ্টি আম আর ঘন নারকেল দুধ দিয়ে পরিবেশন করা এই খাবারটা আমার খাওয়া খাবারগুলোর মধ্যে সবথেকে পছন্দের একটা ছিলো!

ভোজনপর্ব – বান্দরবান

শেষদিন আমরা বাঁশ কুড়ুল অর্ডার করেও পেট ভরে যাওয়ায় খেতে পারি নি, জোর করেও ওটার দাম দিতে পারি নি, যেহেতু খাই নি এজন্য ওরা দাম রাখবে না!  

আলোচিত পোস্ট


আজকের ছবি-২১-০৫-১৮

আজকের ছবি-২১-০৫-১৮

রবিবার, মে ২০, ২০১৮