সৌদি আরব শুধু ঘুরতে যাবার জন্য দারুন কোন গন্তব্য নয় যদিও, কিন্তু এই দেশের আছে বহু পুরনো ও সমৃদ্ধ ইতিহাস। আর পবিত্র রমজানেই পাবেন সৌদির ইতিহাসের সাথে গভীরতম সংযোগ এর উপলব্ধি।

এসময় এখানকার সংস্কৃতি দেখে একটা শুদ্ধ উপলব্ধি তো তৈরি হবেই, সাথে শিখে নিতে পারেন স্থানীয় খাবার রান্নার পদ্ধতি। কেননা সৌদির রয়েছে নিজস্ব ইফতার ঐতিহ্য, আর কিছু নিয়মিত আইটেম তাদের ইফতার টেবিল এ না থাকলেই নয়। তাই সেগুলো রান্না হয় ঘরে ঘরে, প্রতিদিনই।

চলুন ঘুরে আসি সৌদির ইফতার টেবিল থেকে-

ভিমতো:

আঙুর, রাস্পবেরি ও ব্ল্যাককারেন্ট এর জুস সহকারে তৈরি এই সফট ড্রিক্স সৌদির ইফতার টেবিলে অবশ্যই থাকবে।

এই ড্রিক্স আরব বিশ্বে এত বেশি জনপ্রিয় যে প্রতি বছর প্রায় ২০ মিলিয়ন বোতল ভিমতো উৎপন্ন করা হয় শুধু সৌদিতেই।

stepfeed.comstepfeed.com

 

কফি:

stepfeed.comstepfeed.com

আরবের কফির খ্যাতি অবশ্য জগত জুড়েই। পৃথিবীর কফির চাহিদার একটা বড় অংশ পূরণ করে আরবের কফি।

তবে ইফতার টেবিলের জন্য আরব রা চায় বিশেষ ধরনের এরাবিক কফি যা কিনা পাওয়া যায় ১০০০-২০০০ মিটার উপরে জন্মানো ফ্রেশলি ব্রিউড কফি এরাবিকা বিন থেকে।

 

খেজুর:

ArtimondoArtimondo

 

এখানে রোজা ভাঙাই হয় খেজুর খেয়ে। আর সৌদি খেজুরের গুণাগুণ ও স্বাদ সম্পর্কে কে না জানে!

 

লাবান:

stepfeed.comstepfeed.com

 

 দুধ, দই ও বিভিন্ন হার্ব দিয়ে তৈরি জনপ্রিয় এই পানীয় সৌদি তে কেফির নামেও পরিচিত। আর ইফতার টেবিলে এটিও একটি অত্যাবশ্যকীয় আইটেম।

সরবা-স্যুপ:

stepfeed.comstepfeed.com

 

এক দুইটা খেজুর খেয়েই সৌদি রোজাদার সরাসরি স্যুপ এ চলে যায়। দারুন স্বাস্থ্যসম্মত এই খাবার সারাদিনের রোজার খাদ্যঘাটতি দূর করে দিতে ভূমিকা রাখে।

ঐতিহ্যবাহী এই স্যুপকে তারা ডাকে সরবা নামে। সরবাতে থাকে টমেটো, মুরগীর মাংস ও ওটসের স্বাস্থ্যকর ও সুস্বাদু মিশ্রণ।

ফাট্টুস সালাদঃ

stepfeed.comstepfeed.com

 

পার্সলে কুচি, টমেটো, পেয়াজ, মরিচ, জলপাই তেল আর পিটা ব্রেড হল এই সালাদের মূল উপকরণ, সাথে রুচি অনুযায়ী মেশানো হয় আরো নানা উপাদান। একদমই স্বাস্থ্যকর এই সালাদ আরব ইফতার টেবিলের অপরিহার্য আইটেম।

ফুল ও তামিজ রুটিঃ

stepfeed.comstepfeed.com

 

ফুল (foul) হল আরবদের ঐতিহ্যবাহী বীন স্ট্যু- একধরনের তরকারি যা খাওয়া হয় তামিজ নামক পনিরের রুটির সাথে। আরবের জনপ্রিয় স্ট্রিটফুড এটি, সেইসাথে স্বল্পমূল্য কিন্তু দারুণ সুস্বাদু হওয়ায় ধনী গরীব সর্বস্তরের মানুষের পছন্দের তালিকার প্রথমে থাকে এই খাবার।

মাংসের পুর ভরা বোরাকঃ

youtubeyoutube

 

অনেকটা স্প্রীং রোল এর মত খেতে, তবে দেখতে বিভিন্ন আকৃতির হয় এই পিঠা জাতীয় খাবার টি। ময়দার তৈরি খোলের মধ্যে রান্না করা মাংশের পুর ভরে ভাজা হয় এটি, শুনতে সহজ মনে হলেও যে বিশেষ ধরণের ময়দার খোল তৈরি করা হয় তা ঘরে তৈরি করা বেশ কঠিন।

মাসুউবঃ

goodykitchen.comgoodykitchen.com

কলা ও পাউরুটি এই খাবারের প্রধান উপাদান। এই দুটি উপাদান কে ব্লেন্ডারে মিশিয়ে উপরে মধু, ক্রিম, চিজ, আমন্ড ও কিশমিশ সহযোগে পরিবেশন করা হয়। সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর, নিঃসন্দেহে!

 

হারিস্যাঃ

কি মনে হচ্ছে, আরব রা শুধুই মিস্টি প্রিয়? উহু! তাদের অন্যতম জনপ্রিয় খাবারের নাম হারিস্যা যার প্রধান উপাদান কিনা ঝাল মরিচ! নানা ধরণের ঝাল মরিচ, বিশেষ করে লাল মরিচের সাথে রসুন, জিরা সহ বিভিন্ন হার্ব মিশিয়ে পেস্ট করে বানানো হয় হারিস্যা।

জারিশঃ

Unilever Food SolutionsUnilever Food Solutions

 

চাল, মুরগীর ঝুরা মাংস, ক্রিম ও পার্লি বার্লি সহযোগে তৈরি এই খাবার ইফতারের অন্যতম অনুষঙ্গ।

মেন্তোঃ

stepfeed.comstepfeed.com

 

মোমো বা ডাম্পলিং এর সৌদি সংস্করণ এই মেন্তো। এটি আরবের বেশ জনপ্রিয় এক ঐতিহ্যবাহী খাবার।

 

সাম্বুসেকঃ

chefjinni.comchefjinni.com

 

একধরনের মাংসের পাই জাতীয় খাবার এটি, যার সাথে আমাদের দেশীয় সমুচার বেশ সাদৃশ্য লক্ষ্য করা যায়। এতে পুর হিসেবে মাংসের কিমা, সবজি বা চিজ থাকে।

 

মান্ডিঃ

Kohinoor RiceKohinoor Rice

একধরণের বিরিয়ানি জাতীয় খাবার।

 

খাবসাঃ

ঢাকাইয়া রেস্তরাঁ গুলোর কল্যাণে এরাবিয়ান খাবসা বেশ পরিচিত নাম এখন। খাবসা আরবের জাতীয় খাবার ।

অথেনটিক আরব খাবসা’য় ব্যবহার করা হয় বাসমতি চাল, মাংস, সবজি ও নানা রকম হার্ব। এই সব মশলাই তারতম্য ঘটায় খাবসার স্বাদের। গার্নিশের জন্য থাকে কাজু, কিশমিশ সহ নানা ধরণের বাদাম, সাথে থাকে ডাক্কুস নামের আরবদের ঘরে বানানো টমেটো সস।