অ্যাডভেঞ্চার

রাইক্ষাং লেক, পুকুরপাড়া, রাঙ্গামাটি

বান্দরবান এর বগালেক থেকে টানা ১৭ ঘণ্টা ট্র্যাকিং করে পৌছুতে হয়েছিল এই ভূস্বর্গে। অবিস্মরণীয় সেই ট্র্যাকিং এর কথা কোনদিনই ভোলা সম্ভব নয়। 

ঝরঝরি ট্রেইল, পন্থিছিলা ,সীতাকুন্ড

মূর্তি ঝর্নার খুব কাছে না গেলে রাস্তাটা দেখা যাবে না। মূর্তি ঝর্নার মাঝখান দিয়ে উপরে উঠলেই পাওয়া যাবে আরো একটা সুন্দর ঝর্না এবং ক্যাসকেড।

Tent Ridge - এ কেবল স্মৃতির ক্যানভাসে প্রকৃতির অভাবনীয় শিল্পকর্ম

এই অপুরূপ শোভা কোনো যন্ত্র দিয়ে ফ্রেমে আটকে কিংবা লিখে বর্ণনা করা যায়না। এ কেবল স্মৃতির ক্যানভাসে প্রকৃতির অভাবনীয় শিল্পকর্ম ।

গহীন পাহাড়ের মাঝে প্রেয়সীর খোঁজে ।

আমাদের উদ্দেশ্য ছিল প্রেয়সীর সাথে সাক্ষাত করে বহু প্রতিক্ষীত ২৯৫০+ ফিট উচ্চতার রুংরাং ক্রিসতং সামিট জয় করে আসা

সংগ্রামপুঞ্জি সিলেট

সাম্প্রতিককালে সিলেটে ঘুরে দেখার মত আরো কিছু নতুন দর্শনীয় স্থান উন্মোচিত হয়েছে। তেমনই একটি হলো সংগ্রামপুঞ্জি বা সেনগ্রামপুঞ্জি ঝর্ণা বা মায়াবী ঝর্ণা এবং আরেকটি হলো উৎমাছড়া

বর্ষা মৌসুমে কেওক্রাডং ট্র্যাকিং

এই প্ল্যানটি বর্ষা মৌসুম এর আলোকে লেখা, শীত মৌসুমে রাস্তা পুরোটাই ভালো থাকে। সম্পূর্ণ পথ চান্দের গাড়ি দিয়েই অতিক্রম করা যায়

হাম হাম ঝর্না

হামহাম থেকে ফেরার পথে মাধবপুর লেক হয়ে ফিরবেন।

মাছাপুছারে বেইসক্যাম্পের কাছে

মাছাপুছারে বেইজক্যাম্পের কাছে কোনও এক অজানা বাড়ি।

আলী সুড়ঙ্গে এডভেঞ্চার

নিঃসীম এই নীরবতা মাঝে মাঝেই ভেঙে যাচ্ছিল ঝিঁঝিঁপোকার আকস্মিক আর্তনাদে। এছাড়া সমগ্র বিশ্ব চরাচর যেন কয়েক মুহূর্তের জন্য থমকে দাঁড়িয়েছিল এক অদ্ভুত নীরব ব্যঞ্জনে। 

ছেড়া দীপ এর পথে

লাইফবোট এ করে ছেড়াদীপ যেতে সময় লাগে ৪৫মিনিট, ভাড়া জনপ্রতি ২০০টাকা, রিজার্ভ ভাড়া কম-বেশি ৩০০০ টাকা, ২০-২৫ জন উঠা যায়

পর্বত ডাকছে, আমায় যেতে হবে

সুন্দর কানানাস্কি (Kananaski) শহরকে পিছনে রেখে উপরের উঠে চলছি পাহাড় বেয়ে । পিছন ফিরলেই পুরো শহরটাকে দুচোখে দেখতে পাচ্ছি। মাউন্টেনটা বেশ খাড়া

ডিম পাহাড়ের ডিম গুহা...

গুহার ঢোকার মুখ খুব বেশী বড় না।কিন্তু আপনি গুহার মুখ দিয়ে ভেতরে ঢুকে যত সামনের দিক এগোবেন গুহা তত বড় হতে থাকবে।

রাজা পাথর 

কথিত আছে, এই পাথরের উপর বসে তৎকালীন রাজা ওনার রাজ কার্য পরিচালনা করতেন।।

মসিন্রাম গুহা, চেরাপুঞ্জি, মেঘালয়

খাগড়াছড়ির আলুটিলা গুহার কয়েক গুন হবে দৈর্ঘ্যে, (১৫০ মিটার) আর গুহার ভেতরে প্রবেশ করলেই প্রাগৈতিহাসিক কালের অনুভূতি পেতে বাধ্য আপনি।

মেঘালয়ের একটা ইকো পার্ক থেকে দেখা সুউচ্চ জলপ্রপাত

আমরা আসলে এর ভয়ংকর রুপ দেখিনি। ভরা বর্ষায় যদি আবার কখনো যাই তাহলে এর পূর্ন রুপ দেখতে পাব। আশা করা যায় মেঘালয়ে ননস্টপ আরো কিছু ট্যুর দিতে পারব।

আলোচিত পোস্ট


ভ্রমণে যখন নারী একা

ভ্রমণে যখন নারী একা

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭

আজকের ছবি-২৪-০৯-১৭

আজকের ছবি-২৪-০৯-১৭

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭

পাহাড়ে আলিশান ক্যাম্পিং

পাহাড়ে আলিশান ক্যাম্পিং

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

আজকের ছবি-২৩-০৯-১৭

আজকের ছবি-২৩-০৯-১৭

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

আকাশ জোনাকির নীড়ে

আকাশ জোনাকির নীড়ে

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৭