আমরা ভোর হবার আগেই পৌছে যাই কাজিরাঙা জাতীয় উদ্যানে। সারি বদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে থাকা হাতির পিঠে চড়ে বেরিয়ে পড়ি জংগলের ভিতর। কুয়াশা আর অল্প আলো থাকায় ভাল ভাবে কিছু দেখতে পেলাম না শুধু ভয় হচ্ছিলো বাঘ না বেরিয়ে আসে। 

সারিবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে থাকা হাতিসারিবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে থাকা হাতি

গন্ডারগন্ডার

আলো ফুটতেই এক এক করে বেরিয়ে আসছে বুনো প্রাণীগুলো। তখনও কুয়াশা ভাল করে কাটেনি দলবদ্ধ হয়ে হরিণ গুলো ঘাস খাচ্ছে। কাছে যেতেই একটি গন্ডার তেড়ে আসছে আমাদের দিকে মাহুত কিছু একটা শব্দ বলতেই থেমে গেল আমরা কিছু ছবি তুলতে পারলাম। হাতির পিঠে বসে ছবি তুলা বেশ মুশকিল। এবার চলছি সামনের দিকে নতুন কিছু দেখার সন্ধানে....

হাতির পিঠে বসে ছবি তুলা বেশ মুশকিল হাতির পিঠে বসে ছবি তুলা বেশ মুশকিল

দেখা হলো বুনো মহিষের সাথেদেখা হলো বুনো মহিষের সাথে

কিছুদুর এগুতেই দেখা হলো বুনো মহিষের সাথে। আমাদের দেখতেই বিরক্তি বোধ করলো মনে হয়, আর বাকি গুলোর এখনো ঘুমিয়ে আছে জলের ধারে। শুনেছি বুনো মহিষ ক্ষেপে গেলে বিপদজনক হয়ে উঠে তাই মাহুত দ্রত স্থান ত্যাগ করে ছুটলো ঘাস বনের দিকে....

ঘুমিয়ে আছে জলের ধারেঘুমিয়ে আছে জলের ধারে

চলবে...