সাম্প্রতিক সময়ে ৮ বছর বয়সী এক চাইনিজ বালকের স্কুলে পৌছানোর ছবি ইন্টারনেট দুনিয়ায় তোলপাড় সৃষ্টি করে। -৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় স্কুলে পৌছাবার পর দেখা যায় তার চুল এবং চোখের পাপড়ি ঠান্ডায় জমে বরফ হয়ে গেছে। সে একটা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে বলে স্কুলে এসেছিলো। 

এই পথ ধরেই সে স্কুলে যায়!এই পথ ধরেই সে স্কুলে যায়!

ফু হ্যাং, স্কুলের প্রধানশিক্ষক হিসেবে কাজ করছেন, নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। তিনি বলেন, বাচ্চাটি যখন স্কুলে এসে পৌছায় আমি দেখতে পাই তার চুল, চোখের পাপড়ি ঠান্ডায় বরফ হয়ে গেছে এবং গাল দুটো লাল হয়ে গেছে। ইন্টারনেট দুনিয়া বাচ্চাটির নাম দেন 'বরফ বালক' এবং স্কুলটি এখন পর্যন্ত ১৫০০০ ডলার সাথে ২০ টা হীটার এবং ১৪৪ টা গরম কাপড় অনুদান পেয়েছে। 

বরফ বালকবরফ বালক

হ্যাং বলেন এটা তাদের বার্ষিক পরীক্ষার শেষ দিন ছিলো। সেই সকালে তাপমাত্রা ৩০ মিনিটের মধ্যে হঠাত করেই -৯ ডিগ্রিতে নেমে যায়। বাচ্চাটি স্কুল থেকে অনেক দূরে বাস করে এবং বাকী ১৬ জন শিক্ষার্থীর কাছে সেদিন হাসির পাত্র পরিণত হয়। ভাবতে অবাক লাগে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে ছেলেটি এতটা আগ্রহী, তার চরম দারিদ্রতার পাশাপাশি দুর্গম আবহাওয়া কোন কিছুই তাকে দমিয়ে রাখতে পারে না।

কোন কিছুই তাকে দমিয়ে রাখতে পারে না।কোন কিছুই তাকে দমিয়ে রাখতে পারে না।

ফু শপথ করেন তার স্কুলের যতটুকু সাধ্য আছে ছেলেটি এবং এমন আরো যারা আছে সবার পড়ালেখায় সাহায্য করবে, সকালবেলা নাস্তার ব্যবস্থা করবে এবং স্কুল ভবন উষ্ণ রাখার জন্য হীটার স্থাপন করবে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে সবার নজরে আসা ছেলেট সবার সহযোগিতায় যেন জীবনে সফল হতে পারে সেই কামনা রইলো।

বোন আর দাদিমাকে নিয়ে তার পরিবার!বোন আর দাদিমাকে নিয়ে তার পরিবার!

দারিদ্রতা তার নিত্যসঙ্গীদারিদ্রতা তার নিত্যসঙ্গী

বোর্ডপান্ডা থেকে অনূদিত।