যাযাবর মন নিয়ে যাঁদের জন্ম তাঁরা একটু ছুটি পেলেই ঘুরতে বেরিয়ে যান। কারো সাথে থাকে তালিকা, কখন-কবে-কোথায় ঘুরতে যেতে হবে! এখন অনলাইনে বিভিন্ন ট্যুর অপারেটর নানা রকম অফার দিয়ে থাকে। এসব অফারের সুবিধা যেমন আছে, বিপদও আছে! ব্পিদটা অবশ্য বুকিংদাতারা নিজেরাই ডেকে আনেন। ঠিকমতো খেয়াল না করা বা ভালোমতো না পড়ে বুকিং দেওয়ার কারণে নানা রকম ঝামেলা পোহাতে হয় ভ্রমণকারীদের।

বিষয়টি কিন্তু উড়িয়ে দেওয়ার মতো নয়। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ায় ১০ হাজার মানুষের ওপর গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে, প্রতি চারজনে একজন অনলাইনে বুকিং দেওয়ার সময় ভজকট পাকিয়ে ফেলেছেন। এমন তথ্যই দেওয়া হয়েছে রিডার্স ডাইজেস্ট পত্রিকায়। সূক্ষ্ম থেকে স্থূল- নানা রকমের ভুল এড়িয়ে যদি হোটেল, বিমান ইত্যাদি বুকিং দিতে চান তাহলে বিষয়গুলো মাথায় রাখুন :

ভালোমতো পড়ুন

একসাথে ডজনখানেক ট্যাব খুলে বসেছেন। সবগুলো অফার একসাথে দেখতে গিয়ে গুবলেট পাকিয়ে ফেলবেন। একজনের অফারকে আরেকজনের ভেবে নিশ্চিন্তে বুকিংও দিয়ে ফেলতে পারেন। তাই আগে পড়ুন স্থির মনে, একেবারে অক্ষর ধরে ধরে। দরকার পড়লে একটা কাগজে টুকে রাখুন কোথায় কী অফার পছন্দ হয়েছে। আগে শর্টলিস্ট তৈরি করুন, তারপর আবার বাছুন। কিন্তু সব একসাথে করবেন না যেন!

অনলাইনে বুকিং দেয়ার আগেঅনলাইনে বুকিং দেয়ার আগে

তারিখটা ঠিক রাখুন

অনলাইনে বুকিং দেওয়ার সময় ক্যালেন্ডারটা হাতের কাছে রাখুন। ছুটির দিনগুলো আলাদা করে টিক দিয়ে রাখুন। তাতে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে কবে যাবেন আর কবে ফিরবেন। ঠিক কোনদিন কোথায় যাবেন। সেটা মাথায় রেখে বুকিং দিন। সময়ের সঠিক ব্যবহার করুন। অনেকেই নিশ্চিন্ত মনে ভুল তারিখে বুকিং দিয়ে নিজের বিপদ নিজেই ডেকে আনেন। সাবধান থাকুন, গুনে গুনে দিন খরচ করুন।

শর্ত পড়ুন, সুবিধা খুঁজুন

একটি ট্র্যাভেল প্যাকেজে হাজারটা জিনিস থাকবে। কোনোটা আপনার লাগবে, কোনোটা লাগবে না। তাই প্রতিটি অক্ষর খুটিয়ে খুটিয়ে পড়ুন, শর্তগুলো বুঝুন। অফার কোন তারিখে শেষ হচ্ছে সেটা দেখুন, খরচের তালিকা দেখুন, শিশুদের জন্য আলাদা কোনো সুবিধা আছে কিনা খুঁজুন, ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে ছাড় পাবেন কি না দেখুন। সবগুলো আলাদাভাবে পড়ে ফেললে বুঝতে পারবেন কী করতে হবে, কোথায় বেশি খাতির পাবেন।

অনলাইনে বুকিং দেয়ার আগেঅনলাইনে বুকিং দেয়ার আগে

নামের বানানটা যেন ঠিক হয়

অনেকে দুর্দান্ত অফার পেয়ে নিজের নামের বানানটাই ভুল করে ফেলেন। এটা কিন্তু সত্যি ঘটে এবং বারবার ঘটে থাকে। পরে যিনি নিজ হাতে বুকিং দেন তিনি পড়েন বিপদে। হোটেলের লবিতে বসে আবার নিজের নামের বানানটা ঠিক করে লিখতে হয়। আপনার যেসব তথ্য সব সময় কাজে লাগবে সেগুলো নির্ভুলভাবে লিখুন। দরকার হলে দুইবার পড়ে তারপর বুকিং দিন। তাহলে একবারে নিশ্চিন্ত হয়ে যাবেন, আর কোনো বিপদ আপনাকে ছুঁতেই পারবে না।

আরেকজনকে দেখিয়ে নিন

সবকিছু চূড়ান্ত করার আগে আপনার বন্ধু বা সঙ্গীকে পুরো অফারটা একবার দেখিয়ে নিন। হতে পারে উত্তেজনা বা তাড়াহুড়োয় আপনার কোনো জায়গায় ভুল হতে পারে। সেটা আরেকজনের চোখে ধরা পড়তে পারে। একজোড়া চোখের চেয়ে দুই জোড়া চোখ তো অবশ্যই বেশি খুঁত ধরবে।